উত্তর ও দক্ষিণ কোরিয়া সীমান্তে গোলাগুলি

574

মিরর বাংলাদেশ : উত্তর ও দক্ষিণ কোরিয়া সীমান্তবর্তী অস্ত্র-মুক্ত এলাকায় দুই দেশের মধ্যে গোলাগুলির খবর পাওয়া গেছে। টানা ২০ দিন রহস্যজনক আড়ালে থাকার পর উত্তর কোরীয় নেতা কিম জং উনের জনসম্মুখে আসার ছবি প্রকাশের একদিনের মাথায় আজ রবিবার (৩ মে) সকালে এ গোলাগুলি হয়। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে

সিউলের সামরিক বাহিনীর দাবি, রবিবার স্থানীয় সময় সকাল সাড়ে ৭টার কিছু পরে দক্ষিণ কোরিয়ার সীমান্ত শহর চেওরওনের একটি সেনা চৌকি লক্ষ্য করে গুলি চালায় উত্তর কোরিয়ার সেনারা। জবাবে পাল্টা দুই রাউন্ড গুলি চালায় সিউল। তবে এই ঘটনায় দুই পক্ষের মধ্যে কেউ হতাহত হয়নি বলেই জানা যাচ্ছে।
ঠিক কী কারণে এ গোলাগুলির সূত্রপাত হয়েছে তা এখনও জানা যায়নি। দক্ষিণ কোরিয়ার জয়েন্ট চিফস অব স্টাফ জানিয়েছেন, কারণ জানতে উত্তর কোরীয় সেনাবাহিনীর হটলাইনে যোগাযোগের চেষ্টা চলছে।
উত্তর ও দক্ষিণ কোরিয়ার মধ্যবর্তী সীমান্তটিতে বিশ্বে সবচেয়ে বেশি সামরিক প্রস্তুতি রয়েছে। সেখানে এই ধরনের গুলি বিনিময়ের ঘটনা বেশ বিরল। সর্বশেষ এরকম গুলি বিনিময় হয়েছিল ২০১৭ সালে।
দক্ষিণ কোরিয়ার সামরিক কর্মকর্তারা বলছেন, উত্তর কোরিয়া সীমান্তে সৈন্য সংখ্যা বৃদ্ধি করছে এমন কোন লক্ষণও দেখা যাচ্ছে না।
সিউল থেকে বিবিসি সংবাদদাতা লরা বিকার জানাচ্ছেন, যে সময় এই গোলাগুলির ঘটনা ঘটলো সেটা লক্ষ্য করার মতো।