করোনা স্বাস্থ্য বিধির সকল নিয়ম ভাঙ্গলেন ফতুল্লা সাব রেজিষ্ট্রার, দুপুরে খাবার খেলেন দুই ঘন্টায়

123

মিরর প্রতিনিধি নারায়ণগঞ্জ :
করোনা থেকে নারায়ণগঞ্জ রক্ষায় দিনরাত যখন পরিশ্রম করে যাচ্ছেন নীতি নির্ধারকরা । ঠিক সেই সময় স্বাস্থ্য বিধির সকল নিয়মকে ভঙ্গ করেছেন নারায়ণঞ্জ জেলা সাব রেজিস্ট্রি অফিস। শহরের প্রাণকেন্দ্র নারায়ণগঞ্জ জেলার প্রশাসকের কার্যালয় থেকে পায়ে হেঁটে মাত্র ৫ মিনিট দুরত্বে অবস্থিত জেলা রেজিষ্ট্রার অফিসে মঙ্গলবার ছিল হাজার হাজার লোক। এর মধ্যে ফতুল্লা সাব রেজিষ্ট্রার কর্মকর্তা  দুপুর পৌনে দুইটায় খাবার খেতে গিয়ে দুই ঘন্টা সময় কাটিয়ে ফিরে আসেন বিকাল ৪ টায়। এতে তার অফিসের বাইরে শত শত লোক দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা গেছে। সেখানে স্বাস্থ্য বিধির কোন বালাই ছিল না।
মঙ্গলবার এত লোক সমাগমের কারণ জানতে সরেজমিন দপুর দুইটায় সেখানে গেলে জানা যায়,ঈদের আগে আর জমি রেজিষ্ট্রি হবে না। আর অফিস নাও খুলতে পারে। এমন ঘোঘনায় কত কয়েক দিন ধরেই দেয়া হয়েছে সারা জেলায়। তাই জমি বেঁচা কেনা রেজিষ্ট্রি করতে রেজিষ্ট্রি অফিসে নামে মানুষের ঢল। সেখানে ছিল না কোন রকম স্বাস্থ্য বিধি। সবচেয়ে সমস্যায় পড়ে ফতুল্লা সাব রেজিষ্ট্রিার কর্মকর্তা  মো: হায়দার আলী খানের চারতলা কার্যলয়ে । সেখানে গিয়ে দেখা যায় প্রায় ৪-৫ শত নারী পুরুষ গাদাগাদি করে অফিস বসে আছে। এর মধ্যে কেউ কেই জায়গা না পেয়ে সিঁড়িতে বসে পড়েছেস। কোথায় আছে সাব রেজিষ্ট্রার কর্মকর্তা।
জানতে চাইলে অফিস সহকারি আনোয়া জানান,স্যার লাঞ্চে দোতলায় আছেন । সেখানে গিয়ে দেখা যায় জেলা সাব রেজিষ্ট্রার অফিসের পাশের একটি রুমে প্রায় দুই ঘন্টা ধরে বসে খাবার খাচ্ছেন। খাবার খাওয়া শেষে শুরু হয় আড্ডা। ভেতর থেকে হাসির শব্দ । কিছুক্ষন পর পর এক পিয়ন চা নিয়ে যাচ্ছেন।  সেখানে খাস ভাবে কিছু স্পেশাল লোক জমির কাগজপত্র প্রবেশ করছেন।
নাম প্রকাশ করে এক ব্যক্তি জানান, এখানে টাকা দিলেই গোপনে কাজ হয়ে যায়। ফতুল্øার স্যার চা খাচ্ছেন।
করোনা পরিস্থিতি ও  সার রেজিষ্ট্রি অফিসে মানুষের ঢলের বিষয়ে তাৎক্ষণিক নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক মোস্তাইন বিল্লাহ জানালে তিনি জানান, এমনটাতো হওয়ার কথা নয়। বিষয়টি আমি দেখছি। ফোন করার পরেই ফতুল্লা সাব রেজিষ্ট্রার খাবার ঘর থেকে বের হয়ে নিজের চারতলা অফিসে ছুটে যান। সেখানে তার কাছে তার দেরী  স্বাস্থ্য বিধি ভঙ্গের কারণ জানতে চাইলে তিনি জানান, একটি মিটিং এ  ছিলাম। দুই ঘন্টা খাাবারের সময় পার করলেন আর এ করোনা পরিস্থিতিতে মানুষের ভীডও প্রশ্নে তিন কোন মন্তব্য করতে চাননি।