চকরিয়া সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৬ পরিবারের পাশে দাড়ালেন গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী

170

মিরর বাংলাদেশ :চকরিয়ার মালুমঘাট গাড়ির চাপায় নিহত ছয় ভাইয়ের পরিবারের পাশে দাঁড়ালেন চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী।

এসময় তিনি প্রত্যেক পরিবারকে নগদ ২৫ হাজার টাকা করে দেড় লাখ টাকা অনুদান তুলে দেন। ওইসময় পরিবারের খোঁজখবর দেন তিনি। নিহত ছয় ভাইয়ের মা, স্ত্রী ও পুত্রদের শান্তনা দেন। সব ধরণের সহায়তারও আশ্বাস দেন তিনি।
গত ২৬ ফেব্রুয়ারি শনিবার সকাল ১১টায় উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন চৌধুরীর নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধিদল মালুমঘাটস্থ হাসিনাবাপের পাড়ার মৃত সুরেশ চন্দ্র সুশীলের পরিবারকে দেখতে যান।

গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী বলেন, একই পরিবারে গাড়ির চাপায় ছয় ভাই নিহত হওয়ার ঘটনাটি খুবই দূ:খজনক। স্বাভাবিকভাবে কেউ মেনে নিতে পারছে না। তাদের পরিবার গুলো শোক সইতে পারছে না। এরপরও আমরা পাশে আছি। যে কোন বিপদে আমাদের সহায়তা অব্যাহত থাকবে। সামান্য আর্থিক সহায়তা দিতে পেরে সৃষ্টিকর্তার কাছে শুকরিয়া আদায় করেন।

নিহতদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে পরিবার গুলোর পাশে দাঁড়ানোর জন্য সমাজের বিত্তবানদের প্রতি আহবান জানিয়েছেন পৌরসভার মেয়র আলমগীর চৌধুরী।

তিনি বলেন, সড়ক দুর্ঘটনায় ৬ ভাইয়ের মর্মান্তিক মৃত্যু দেশের ইতিহাসে ইতোপূর্বে আর ঘটেনি। অসহায় পরিবার গুলোর পাশে সবসময় পাশে থাকার ঘোষণা দেন তিনি।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি এম আর চৌধুরী, সাংগঠনিক সম্পাদক মিজবাউল হক, চকরিয়া পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মুজিবুল হক, চকরিয়া পৌরসভা কৃষকলীগের সাবেক সভাপতি সুলাল কান্তি সুশীল, ডুলাহাজারা ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান নুরুল আমিন, ফাইতং ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি হেলাল উদ্দিন, ডুলাহাজারা আওয়ামী লীগ নেতা কলিম উল্লাহ কলিম আবু নঈম চৌধুরী আপন।
গত ৮ ফেব্রুয়ারি ভোর ৫টায় মৃত বাবা ডা. সুরেশ চন্দ্র শীলের শশানে  ৯ ভাই-বোন পূজো দিতে যাচ্ছিলেন। ওইদিন হঠাৎ করে পিকআপ গাড়ির চাপায় ঘটনাস্থলে ৫ ভাই নিহত হয়। পরে আরও একভাই চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা যান।