‘দুই শর্তে’ যুক্তরাষ্ট্রে রবিবার ঈদ উদযাপন

258

মিরর বাংলাদেশ : ‘দুই শর্তে’ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী মুসলমানরা রবিবার (২৪ মে) পবিত্র ঈদুল ফিতর উদযাপন করবেন। তবে এবার কোন মসজিদ অথবা খোলা মাঠে ঈদ জামাত হবে না। সকলেই নিজ বাসায় পারিবারিকভাবে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে ঈদ জামাতে অংশ নেবেন। করোনার তান্ডবে এখনও ১০ জনের বেশি মানুষ একত্রিত হবার কোন অনুমতি রাজ্য প্রশাসন থেকে না থাকায় সকলেই স্বাস্থ্যনীতি মেনে চলার কথা বলেছেন।

এছাড়া শুক্রবার দুপুরে হোয়াইট হাউজে এক প্রেসব্রিফিংকালে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প সকল চার্চ, সিনোগগ, মন্দির, মসজিদ খুলে দেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন। ট্রাম্প চাচ্ছেন শনিবার থেকে সোমবার পর্যন্ত মেমোরিয়্যাল ডে উইকেন্ডে আমেরিকানরা যাতে শহিদ সৈনিক এবং করোনায় নিহতদের সম্মানে নিজ নিজ ধর্মীয় রীতি অনুযায়ী প্রদর্শন করতে পারেন। একইসাথে মুসলমানরা ঈদ জামাতেও অংশ নিতে পারবেন। তবে ট্রাম্পের এই নির্দেশ কেউই মানতে রাজি নন।
কারণ, এখনও করোনা ভাইরাসের তান্ডব অব্যাহত রয়েছে। সংক্রমিতদের শতভাগ চিহ্নিত করা সম্ভব না হওয়ায় ধর্মীয় সমাগমের মাধ্যমে পুনরায় তা বিস্তৃত হতে পারে। ইতিমধ্যেই বিভিন্ন সিটিতে এমন পরিস্থিতি সকলে প্রত্যক্ষ করছেন। এছাড়া, নিউইয়র্ক, নিউজার্সি, পেনসিলভেনিয়া, কানেটিকাট, ম্যাসেচুসেটস, ভার্জিনিয়া, ম্যারিল্যান্ড, ওয়াশিংটন ডিসি, মিশিগান, ফ্লোরিডা, ক্যালিফোর্নিয়া, ওয়াশিংটনসহ সবচেয়ে বেশী আক্রান্ত রাজ্যসমূহের গভর্নররাও লোক সমাগমের অবাধ অনুমতি দেননি। জনস্বাস্থ্য সুরক্ষায় রাজ্য গভর্নরদের এই নির্দেশের প্রতি সকলেই অবিচল রয়েছেন।
এদিকে, নিউইয়র্কে প্রধান প্রধান মসজিদগুলোর পক্ষ থেকে ঈদ জামাত না করার সিদ্ধান্ত জানানো হয়েছে। সকলেই পারিবারিকভাবে বাসায় নামায আদায় করবেন সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে। কোলাকুলি থাকবে না।
সিটিতে বাংলাদেশিদের সবচেয়ে বড় মসজিদ ‘জ্যামাইকা মুসলিম সেন্টার’র সেক্রেটারি মঞ্জুর আহমেদ চৌধুরী শুক্রবার (২২ মে) বিকেলে জানান, “আমরা সিটি এবং রাজ্য প্রশাসনের নির্দেশ অনুযায়ী মসজিদ অথবা খোলামাঠে ঈদ জামাত করবো না। এ সিদ্ধান্ত সকল মুসল্লিদেরকে জানানো হয়েছে। তবে রোববার সকাল পৌণে ৯টায় ভার্চুয়াল ঈদ জামাত শুরু হবে। এটি স্থানীয় টিবিএন২৪ টিভিসহ কয়েকটি চ্যানেল সরাসরি সম্প্রচার করবে। সে সময় নিউইয়র্কের পুলিশ কমিশনারসহ শীর্ষস্থানীয় রাজনীতিকরা ঈদ শুভেচ্ছা জানাতে পারেন।”