নতুন ব্যাংকগুলোও খেলাপি ঋণের ফাঁদে

661

খেলাপি ঋণ কমানোর জন্য সরকার ও বাংলাদেশ ব্যাংকের কোনো উদ্যোগই কাজে আসছে না। পুরনো ব্যাংকগুলোর সাথে পাল্লা দিয়ে দিন দিন বাড়ছে নতুন প্রজন্মের ব্যাংকগুলোর খেলাপি ঋণও। চলতি বছরের সেপ্টেম্বর শেষে চতুর্থ প্রজন্মের ৯ ব্যাংকের ঘাড়ে নতুন করে চেপেছে ৭২৭ কোটি ৮৫ লাখ টাকার খেলাপি ঋণের বোঝা।

বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য মতে, চলতি বছরের সেপ্টেম্বর শেষে নতুন ৯টি ব্যাংকের মোট খেলাপি ঋণের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৫ হাজার ৭৫৬ কোটি টাকা। কিন্তু মাত্র ৩ মাস আগেও এই খেলাপির পরিমাণ ছিল ৫ হাজার ২৮ কোটি টাকা। এই সময়ের ব্যবধানে ব্যাংকগুলোর খেলাপি ঋণ বেড়েছে ৭২৮ কোটি টাকা।

তবে এক বছর আগেও এই ব্যাংকগুলোর খেলাপি ঋণ ছিল আরও কম। ২০১৮ সালের সেপ্টেম্বরে নতুন ৯টি ব্যাংকের মোট খেলাপি ছিল ৪ হাজার ২২৮ কোটি টাকা। সুতরাং এক বছরের ব্যবধানে খেলাপি বেড়েছে প্রায় ১ হাজার ৫২৮ কোটি টাকা।

অর্থনীতিবিদরা বলছেন, খেলাপি গ্রাহকদের কোনো শাস্তির ব্যবস্থা না করে উল্টো তাদের বার বার সুযোগ দেয়ার কারণে খেলাপি ঋণ বাড়ছে। অপরাদীদের শাস্তির আওতায় না আনা পর্যন্ত এই ঋণের লাগাম টানা যাবে না। এই জন্য ব্যাংক নিয়ন্ত্রনকারী এবং আইন প্রয়োগকারী সংস্থাকে আরও কঠোর ভূমিকা পালন করতে হবে।