নারায়ণগঞ্জ শহরে টহল দিচ্ছে সেনাবাহিনী

528

মিরর বাংলাদেশ : করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধ, সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিতকরণ ও সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নেয়ার ক্ষেত্রে প্রশাসনকে সহায়তা করতে নারায়ণগঞ্জ শহরে টহল দিয়েছে সেনাবাহিনী।

মঙ্গলবার দুপুর পৌনে ১টায় সদর উপজেলার চাঁদমারী এলাকায় জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে থেকে এ টহল শুরু হয়। পরে সেনা সদস্যরা শহরের চাষাঢ়া গোল চত্বর থেকে বঙ্গবন্ধু সড়কের নিতাইগঞ্জ পর্যন্ত ঘুরে পুনরায় জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে গিয়ে শেষ হয়।

জানা যায়, কাল বুধবার থেকে পরিস্থিতি মোকাবিলায় সেনা সদস্যরা স্থানীয় প্রশাসনকে নিয়ে করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় কাজ করবেন। নারায়ণগঞ্জে সেনা সদস্যরা করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ব্যক্তিদের তালিকা প্রস্তুত এবং বিদেশ ফেরতদের কোয়ারেন্টাইনে থাকা নিশ্চিত করতে স্থানীয় প্রশাসনের পদক্ষেপে সহায়তা ও সমন্বয় করবেন। এছাড়া বিভাগ এবং জেলা পর্যায়ে প্রয়োজনে মেডিকেল সহায়তা দেবে সেনাবাহিনী। সেনাবাহিনী সামাজিক দূরত্ব ও সতর্কতামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ, সন্দেহজনক ব্যক্তিদের কোয়ারেন্টাইন ব্যবস্থা পর্যালোচনায় বেসামরিক প্রশাসনকে সহায়তা দেবে। জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের সমন্বয়ে তারা জেলায় করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা ব্যবস্থা, সন্দেহজনক ব্যক্তিদের কোয়ারেন্টাইন ব্যবস্থা পর্যালোচনা করবে।

নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক মো: জসিম উদ্দিন বলেন, সেনাবাহিনী ইতিমধ্যে চলে এসেছেন। তাদের কার্যক্রম শুরু হয়েছে। প্রতি উপজেলায় থাকবে সেনা সদস্যরা। তবে কতজন সেনাসদস্য জেলায় কাজ করবেন তা জানাতে পারেননি তিনি।

জেলা প্রশাসক বলেন, করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিতকরণ, বিদেশ ফেরত ব্যক্তিদের হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকতে বাধ্য করা, খাদ্য মজুদ করে সংকট তৈরি করা ও সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নেয়ার ক্ষেত্রে প্রশাসনকে সহায়তা করতে সেনা সদস্যদের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। নারায়ণগঞ্জের পাঁচটি উপজেলায় একটি করে তাদের টিম মোতায়ন করা হয়েছে। তবে সদর উপজেলার টিমই শহরের দায়িত্ব পালন করবে।