ফতুল্লায় ৭ মাসের গর্ভবতী গৃহবধূকে গলা কেটে হত্যা

196

মিরর বাংলাদেশ: নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় রাবেয়া বেগম নামে চার সন্তানের জননী সাত মাসের গর্ভবতী গৃহবধূকে গলা কেটে হত্যা করা হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুর ১টায় ফতুল্লার পঞ্চবটি শান্তিনগর এলাকার সেলিম মিয়ার ভাড়াটিয়া বাসা থেকে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য ভিক্টোরিয়া হাসপাতাল মর্গে প্রেরন করা হয়।

নিহত রাবেয়া বেগম(৩৫) ভোলা জেলার দক্ষিন আইচা থানার তাল্লুক কান্দা গ্রামের তোফাজ্জল সিকদারের মেয়ে। সে স্বামী ও সন্তানদের নিয়ে ফতুল্লার হরিহর পাড়া শান্তিনগর দুলাল মিয়ার বাড়ীর ভাউাটিয়া বাসায় বসবাস করেন। এঘটনায় নিহতের স্বামী সোহেল আহমেদ অপুকে আটক করেছে পুলিশ। অপু বরিশাল জেলার কোতয়ালী থানার চর নিহালগঞ্জ গ্রামের মোস্তফা হাওলাদারের ছেলে।

অপু জানান, তার স্ত্রী রাবেয়া বেগম সুদে টাকা দিতেন লোকজনকে এবং বিভিন্ন জনের সঙ্গে ফোনে কথা বলতেন। এনিয়ে দেড় মাস আগে স্ত্রীর সঙ্গে ঝগড়া করে চার পুত্র সন্তানকে বাসায় রেখে বাহিরে নানা জনের বাসায় থাকেন এবং গার্মেন্ট কাজ করেন। বাড়ির লোকজন জানান, সোমবার রাতে অপুকে বাসায় আসতে দেখেছে। মঙ্গলবার সকালে তার স্ত্রীর জবাই করা লাশ ঘরের ভিতর পাওয়া যায়। তার শিশু সন্তানরা বলেন, তাদের মা বাবা এক রুমে থাকেন আর তারা পাশের আরেকটি রুমে থাকেন। রাতে তার বাবা বাসায় এসে ছিল। রাতের কখন তাদের মাকে হত্যা করা হয়েছে। তখন তারা ঘুমে ছিল।

ফতুল্লা মডেল থানার ওসি রকিবুজ্জামান জানান, বিষয়টি তদন্ত চলছে বিস্তারিত পরে জানানো হবে।