ভারতে এবার করোনার বলি প্রখ্যাত ইতিহাসবিদ

625

মিরর বাংলাদেশ : ভারতে এবার চলমান বৈশ্বিক মহামারি করোনা ভাইরাসের (কভিড-১৯) সংক্রমণের বলি হয়েছেন দেশটির প্রখ্যাত ইতিহাসবিদ হরিশঙ্কর বাসুদেবন। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম স্ক্রল.ইন জানিয়েছে, মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৬৮ বছর। শনিবার দিবাগত রাত একটা নাগাদ তিনি পরলোক গমন করেন।

মে মাসের শুরুতেই জ্বরে আক্রান্ত হন ইতিহাসবিদ হরিশঙ্কর। পরে শ্বাসকষ্ট ও গলাব্যথা হওয়ায় সল্টলেকের একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাকে। সকল উপসর্গ দেখে দ্রুত তার করোনা পরীক্ষা করানো হয়। বৃহস্পতিবার সকালে পাওয়া রিপোর্ট জানা যায়, তিনি করোনা পজিটিভ।
শুক্রবার শ্বাসকষ্ট বাড়ায় হরিশঙ্করকে চিকিৎসকদের পরামর্শে ভেন্টিলেশনে রাখা হয়। তবে শেষরক্ষা হয়নি।
কভিড-১৯ পজিটিভ রিপোর্ট আসার পরেই হরি বাসুদেবানের সল্টলেকের বাড়ির আশপাশ এলাকা সিল করে দিয়েছে বিধাননগর থানার পুলিশ। ইতিহাসবিদের পরিবারের পাঁচ সদস্যকে হোম-কোয়ারেন্টিনে থাকার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।
তিনি কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে দীর্ঘদিন ধরে আধুনিক ইতিহাস পড়াতেন। এ ছাড়াও কেন্দ্রীয় সংস্থা কলকাতার মৌলানা আবুল কালাম আজাদ ইনস্টিটিউট অব এশিয়ান স্টাডিজের অধিকর্তা পদেও ছিলেন।
আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন এই ইতিহাসবিদের বেশ কয়েকটি বই রয়েছে। ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অব হিস্টোরিক্যাল রিসার্চের প্রাক্তন সদস্য এই ইতিহাসবিদের প্রয়াণে তার গুণমুগ্ধদের মধ্যে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।
এদিকে, ক্রমশই অবনতির দিকে যাচ্ছে ভারতের করোনাভাইরাস পরিস্থিতি। দেশটিতে আক্রান্তের সংখ্যা লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। গত ১১ দিনে দ্বিগুণ হয়েছে প্রাণহানি।

দ্য হিন্দুর রবিবার (১০ মে) সকালের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, এ পর্যন্ত ভারতে করোনা শনাক্ত হয়েছে ৬২ হাজার ৬৬২ জনের। মারা গেছে ২ হাজার ৯০ জন।
এদিকে ‘এই সময়’ জানায়, মে মাসের শুরুর দিকে পরিসংখ্যানগত দিক থেকে পরিস্থিতি কিছুটা ভালো থাকলেও, গত তিন-চার দিনে মৃতের হার ব্যাপকভাবে বেড়েছে।
শনিবারের সংবাদ সম্মেলনে ভারতের কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষ বর্ধন বিষয়টি স্বীকারও করে নিয়েছেন।
তবে ভারতের অবস্থা ইউরোপ-আমেরিকার দেশগুলোর মতো হবে না আশ্বাস দিয়ে তিনি বলেন, ‘সবচেয়ে খারাপ পরিস্থিতির জন্যই দেশকে তৈরি রেখেছি আমরা।’