সোমবার, মে ২৭, ২০২৪
ads
Home অন্যান্য মানিকগঞ্জে সরকারি চাল আত্মসাৎকারী সেই স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতাকে পদ থেকে অব্যাহতি

মানিকগঞ্জে সরকারি চাল আত্মসাৎকারী সেই স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতাকে পদ থেকে অব্যাহতি

1004

ছবি : স্বেচ্ছাসেবকলীগে পদ থেকে অব্যাহতি প্রাপ্ত আবু বকর বরকত।

শাহীন তারেক মানিকগঞ্জ :
মানিকগঞ্জের সিংগাইরে সরকারি চাউল আত্মসাতের অভিযোগে স্বেচ্ছাসেবকলীগের ইউনিয়ন সভাপতি আবু বক্কর সিদ্দিককে (বরকত) পদ থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন  সিংগাইর উপজেলা আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি ওবায়দুর রহমান।

আজ সোমবার চাউল আত্মসাতের বিষয়টি মিরর বাংলাদেশ ডটকমে প্রকাশিত হওয়ার পর নড়েচড়ে বসেন স্বেচ্ছাসেবক লীগের উপজেলা কমিটি।
সিংগাইর উপজেলা আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি ওবায়দুর রহমান ও সেক্রেটারি মুহাম্মদ উজ্জল হোসেন স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয় যে,ধল্লা ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি আবু বকর সিদ্দিক ওরফে বরকত সরকারি ১০  টাকা কেজি চাউল বিক্রিতে অনিয়ম করায় এবং তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হওয়া

তাকে সভাপতি পদ থেকে অব্যাহতি  দেয়া হয়

আগে যা ঘটেছিল 

মানিকগঞ্জের সিংগাইরে সরকারের খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির (১০ টাকা কেজির) চাল আত্মসাৎ ও অবৈধ মজুদের অভিযোগে এক ডিলারকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। আবুবকর সিদ্দিক নামে ওই ডিলার ধল্লা ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি। সোমবার সিংগাইর থানা পুলিশ গ্রেফতারকৃত আবু বক্কর সিদ্দিক কে জেলহাজতে প্রেরণ করেছেন।

পুলিশ ও খাদ্য বিভাগ সূত্র জানায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ধল্লা ইউনিয়নের ওই ডিলারের গোডাউনে অভিযান চালান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুনা লায়লা।
এসময় চলতি মাসের ৮৯ বস্তা চাল গোডাউনে পাওয়া যায়নি। একই সাথে কার্ডধারীদের মাঝে বিতরণ না করে গত মাসের ৪৪ বস্তা চাল গোপনে মজুদ রেখেছিলো ডিলার আবুবকর সিদ্দিক ওরফে বরকত। পরে তাকে পুলিশে সোর্পদ করা হয়।
এঘটনায় ধল্লা ইউনিয়নের ট্যাগ অফিসার মোঃ নাজিমুদ্দিন বাদি হয়ে থানায় মামলা করেছেন।

স্বেচ্ছাসেবক লীগের সিংগাইর থানা সভাপতি ওবায়দুর রহমান জানান, আমরা ধল্লা ইউনিয়নের সভাপতি আবু বকর সিদ্দিক চাল আত্মসাতের বিষয়টি আমরা জেনেছি, বিষয়টি আমরা দলগতভাবে যাচাই-বাছাই করবো যদি দোষী সাব্যস্ত হয় তাহলে তাকে দল থেকে বহিষ্কার করার ব্যবস্থা গ্রহণ করব।

সিংগাইর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুনা লায়লা জানান, রবিবার সন্ধ্যার পর তিনি ধল্লা ইউনিয়নের ডিলার আবু বকর সিদ্দিকের গোডাউনে অভিযান চালান। অভিযানকালে দেখা যায়, ওই ডিলার চলতি মাসের বরাদ্দকৃত ২ হাজার ৬৭০ কেজি এবং গতমাসের ২ হাজার ২শত কেজি চাল খোলা বাজারে বিক্রি না করে সেখানে গোপনে মজুদ রেখেছিলো। সরকারী চাল আত্নসাৎ এবং গোপনে মজুদ রাখার অভিযোগে তাকে আটক করা হয়।