মার্কিন হুঁশিয়ারিকে বৃদ্ধাঙ্গুল দেখিয়ে তুরস্কে এস-৪০০ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা চালু

620

মিরর বাংলাদেশ : আমেরিকা গত সপ্তাহে তুরস্ককে রাশিয়ার কাছ থেকে প্রাপ্ত এয়ার ডিফেন্স সিস্টেম এস-৪০০ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা সক্রিয় করার বিষয়ে সতর্ক করেছিল। মার্কিন হুঁশিয়ারিকে বৃদ্ধাঙ্গুল দেখিয়ে তুরস্কে এস-৪০০ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা চালু হতে যাচ্ছে। যুক্তরাষ্ট্রের এমন হুঁশিয়ারির পর করোনা মহামারির কারণে কঠিন অর্থনৈতিক সংকটের মুখে পড়া তুরস্ক পরিস্থিতি সামাল দিতে এস-৪০০ যুক্তরাষ্ট্রের কাছে বিক্রি করতে বাধ্য হতে পারে বলে আশঙ্কা করেছিলেন সামরিক বিশ্লেষকরা। আঙ্কারাভিত্তিক সংবাদমাধ্যম ‘কূর্দিস্তান টোয়েন্টি ফোর’ এ খবর জানায়।

যুক্তরাষ্ট্রের হুশিয়ারি সত্ত্বেও মস্কো অস্ত্র ব্যবস্থা সরবরাহের কাজ শেষ করেছে। তবে করোনা ভাইরাস মহামারির কারণে এর সক্রিয়করণ বিলম্বিত হয়েছে। মূলত এপ্রিল মাসেই এটা সক্রিয় করার জন্য নির্ধারিত সময় ছিল। এস-৪০০ চালু করা হলে তুরস্ককে নিষেধাজ্ঞার মুখোমুখি হতে হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।
তুরস্কে মার্কিন রাষ্ট্রদূত ডেভিড স্যাটারফিল্ড বৃহস্পতিবার আটলান্টিক কাউন্সিল কর্তৃক অনলাইনে আয়োজিত ভার্চ্যুয়াল সেমিনারে ওয়াশিংটনের অব্যাহত বিরোধিতার কারণ ব্যাখ্যা করেছেন। এক প্রশ্নের জবাবে স্যাটারফিল্ড বলেন, “আমরা রাষ্ট্রপতি এরদোগান ও তুরস্কের সকল প্রবীণ নেতৃত্বের কাছে আমাদের অবস্থানকে বেশ স্পষ্ট করে তুলে ধরেছি। এ বিষয়টি নিয়ে ওয়াশিংটন এবং আঙ্কারার মধ্যে বারবার আলোচনা হয়েছে। এস-৪০০ সিস্টেমের কার্যক্রম তুরস্কের এফ-৩৫ এর সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ নয়।”
যুক্তরাষ্ট্রের তৈরি সর্বাধিক উন্নত যুদ্ধবিমান এফ-৩৫। তুরস্ক ১৯৯৯ সালে ১০০টি এফ-৩৫ কেনার জন্য আমেরিকার সঙ্গে চুক্তি করে। এর মধ্যে গত বছরের ২২ জুলাই প্রথম চালান হিসেবে একটি বিমান হস্তান্তর করে যুক্তরাষ্ট্র। তবে রাশিয়ার সঙ্গে আঙ্কারার এস-৪০০ চুক্তিটি বাতিল না করা হলে এফ-৩৫ অত্যাধুনিক যুদ্ধ বিমান সরবরাহ করবে না।
আঙ্কারার অর্থনৈতিক পরিণতি সম্পর্কে সতর্কতাও দিয়েছেন স্যাটারফিল্ড। তিনি বলেছেন, “এস-৪০০ সক্রিয়করণ করা হলে তুরস্ককে মার্কিন কংগ্রেসের অস্ত্র ও অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞার মুখে পড়ার খুব বড় সম্ভাবনা রয়েছে। ওয়াশিংটনের অসন্তুষ্টি কূটনৈতিক চ্যানেলে যেমন প্রকাশ করা হয়েছে তেমনি তুরস্কের সরকারের কাছেও তুলে ধরা হয়েছে।”
তবে আমেরিকার এসব হুমকি পাত্তা দিচ্ছে না তুরস্ক। আঙ্কারার অবস্থান এস-৪০০ চালুর কার্যক্রম বিলম্বিত হয়েছে, তবে তারা এগিয়ে যাবে। তুরস্কের রাষ্ট্রপতি এরদোগানের প্রধান উপদেষ্টা ইব্রাহিম কালিন বলেন, “করোনা মহামারিজনিত কারণে এস-৪০০ রাশিয়ান ক্ষেপণাস্ত্র সিস্টেমটির সক্রিয়করণ স্থগিত রয়েছে। তবে এটি যেমন পরিকল্পনা করা হয়েছিল তেমনি এগিয়ে যাবে। আঙ্কারা পিছু হটবে না।”