রূপগঞ্জে প্রেমিকের হাত ধরে স্কুল ছাত্রীর ঘর ছাড়া নিয়ে চাঞ্চল্য

167

মিরর বাংলাদেশ
নারায়ণগঞ্জের রুপগঞ্জে প্রাপ্ত বয়স্ক এক স্কুল ছাত্রী প্রেমের টানের ঘর ছেড়ে পালিয়ে যাওয়া নিয়ে চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে। গোপনে বিয়ে করার দেড় মাসের মাথায় প্রেমিক আফজাল হোসেনের সাথে পালিয়ে যায় কাঞ্চন পৌর সভার আশরাফ জুট মিল হাই স্কুলের দশম শ্রেনীর ছাত্রী হালিমা আক্তার মিম (১৮)। গত ২৫ এপ্রিল মিম তার প্রেমিক আফজাল হোসেনের হাত ধরে স্বেচ্ছায় গোপনের ঘর ছাড়ে। স্কুল ছাত্রী মিম কাঞ্চন পৌর সভার কেন্দুয়াপাড়ার কামাল হোসেন ও রাশিদা বেগমের  কন্যা। অপরদিকে আফজাল হোসেন রুপগঞ্জের ভোলাবো দড়িচারিতালুক এলাকার চানমিয়া মুন্সির পুত্র।
স্থানীয় সূত্র জানা গেছে,আফজাল হোসেনের সাথে দীর্ঘ দিন ধরে প্রেমের সম্পর্ক ছিল স্কুল ছাত্রী হালিমা আক্তার মিমের। ১৮ বছর পূর্ন হওয়ার পর মিম সিদ্ধান্ত নেয় আফজাল হোসেনকে বিয়ে করার। তাদের উভয়ের সিদ্ধান্ত মোতাবেক গত ৬ মার্চ কাজী অফিসের গিয়ে ২লাখ টাকা দেনমোহর নির্ধারন করে বিয়ে করে প্রেমিক জুটি আফজাল ও মিম। রুপগঞ্জের গোলাকান্দালই কাজী অফিসে তাদের বিবাহ রেজিষ্ট্রি করা হয়। এদিকে আফজাল ও মিম বিয়ে করার পর তা গোপন রাখে। বিয়ের বিষয়টি প্রকাশ পেলে মিমের পরিবার মেনে নিতে সমস্যা সৃষ্টি হতে পারে এমন আশংকা থেকে দুই জনই বিয়ের বিষয়টি গোপন রাখে। এরই মধ্যে মিমের বাবা কামাল হোসেন অন্যত্র বিয়ে ঠিক করে মিমের। ফলে একপ্রকার বাধ্য হয়েই মিম তার বিয়ে করা স্বামী আফজালের হাত ধরে ঘর ছাড়ে।


এদিকে মেয়ে ঘর ছেড়ে পালানোর কারনে আফজালের পরিবারের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়ের করেন মিমের বাবা কামাল হোসেন। অনেকটা গোপনে গত ২৬ এপ্রিল রুপগঞ্জ থানায় এ মামলা দায়ের করেন কামাল। একদিকে গোপনে মামলা অপরদিকে আফজালের পরিবারের সাথে সমঝোতার প্রস্তাব দিয়ে আনুষ্ঠানিক ভাবে বসার আবেদন করে কামাল হোসেন। সেমতে পারিবারিক ভাবে বসার বেঠকে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে আফজালের পরিবারের দুইজন সদস্যকে আইন শৃৃঙ্খলাবাহিনীর কাছে ধরিয়ে দেয় কামাল হোসেন। এনিয়ে এলাকার লোকজন মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। অনেকে বলেন, মিম তার স্বামী আফজালের সাথে পালিয়েছে। তারা দুই জনই প্রাপ্ত বয়স্ক। তাদের বিয়ে করার স্বাধীনতা আছে। এছাড়া তারা দুইজন দুইজনকে ভালোবাসে। কিন্ত মিমের বাবা কামাল হোসেন কেন আফজালের পরিবারের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়ের করলো। এমন প্রশ্ন তোলেন অনেকে।
এদিকে মিমি তার পরিবার পরিজনের কাছে এক ভিডিও বার্তা পাঠিয়ে জানান দিয়েছেন, তিনি স্বেচ্ছায় আফজালের হাত ধরে পালিয়েছে। সে প্রাপ্ত বয়স্ক । তাকে কেউ অপহরন করেনি। আফজালকে সে ভালোবেসে বিয়ে করেছে। তার বাবা কামাল হোসেন হয়রানি করার জন্য আফজালের পরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়েছে।
এদিকে মিমের পাসপোর্ট খতিয়ে দেখা গেছে, সেখানে তার স্বামীর নাম আফজাল হোসেন লিখেছেন এবং পাসপোর্ট অনুযায়ী তার বয়স ১৮ বছর একমাস ২১দিন।